সংবাদ শিরোনামঃ

ঘারমোড়া ইউনিয়নে আবারো এগিয়ে আবুল হাসেম ..

নিজস্ব প্রতিবেদক :

আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে সামনে রেখে জমজমাট হয়ে উঠেছে কুমিল্লা হোমনা উপজেলার ৮ নং ঘারমোড়া ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ফুটবল মার্কা প্রতীক নিয়ে আবুল হাসেমের পক্ষে ঢল নেমেছে এলাকাবাসীর । জনমত যাচাই করে দেখা যায় আবুল হাসেমকে আবারো মেম্বার হিসেবে দেখতে চায় এলাকাবাসী । টানা ২য়বারে মতো এবারো মেম্বার প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন সাবেক মেম্বার আবুল হাসেম। মনোনয়ন সংগ্রহের পর থেকেই তিনি ব্যাপক প্রচার প্রচারণা ও গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। ঘারমোড়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডবাসী মনে করে এলাকার উন্নয়নে ও জনবান্ধব মেম্বার হিসেবে আবুল হাসেমের বিকল্প নেই। তিনি গতবারের সফল নির্বাচিত মেম্বার হয়ে এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। মনিপুর গ্রামের অনেক গরিব দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন তাই পুনরায় নির্বাচিত হলে সব শ্রেণী পেশার মানুষকে সাথে নিয়ে ঘারমোড়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডকে একটি মডেল ওয়ার্ড হিসেবে রূপান্তরিত করবেন । এব্যাপারে জানতে চাইলে আবুল হাসেম সাংবাদিকদের বলেন আমি করোনাকালের দুঃসময়েও নিজের জীবন বাজি রেখে গরিব দুঃখী মানুষের কাজ করে আসছি । করোনা মহামারীতে অসহায় পরিবারের মাঝে ত্রাণ দিয়েছি। দরিদ্র শিক্ষার্থীদের সহযোগিতা করে আসছি । এলাকায় মানুষের পাশে থেকে সুখ দুখে সাথী হয়েছি আশা করি এলাকাবাসী আগামী ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হওয়া নির্বাচনে প্রতিবারের মতো এবারো বিজয়ী করবে। এবারও ফুটবল মার্কা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করবো ইনশাল্লাহ । ছাড়াও তিনি বর্তমানে এলাকায় বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান,শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ সকল ধরনের সামাজিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করে যাচ্ছেন । এলাকায় মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ,বাল্যবিবাহসহ সকল অপরাধমুলক বিষয়ে প্রতিবাদী ব্যাক্তি নামে সুপরিচিত হয়েছেন তিনি। অসহায় মানুষরা তাকে ডাক দিলেই হাতের নাগালে পান। করোকালীন সময়ে তিনি গরীব দুখী মানুষের পাশে থেকে বিভিন্ন সময় সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে মানবতার ফেরীওয়ালা হয়েছেন । ঘারমোড়া ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের একাধিক ভোটাররা জানান তিনি সৎ, মার্জিত, শিক্ষিত, ভদ্র স্বভাবী,প্রতিবাদী হওয়ায় এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে তার বিকল্প নেই। তিনি ইউপি সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হলে সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে। ও এলাকার সাধারণ জনগন ন্যায় বিচার পাবে। তা ছাড়াও রাস্তা ঘাট. স্কুল, মসজিদ, মাদ্রাসা সহ সকল প্রতিষ্ঠানের ব্যপক উন্নয়ন হবে, এছাড়াও তিনি যোগ্যতার সহিত সকল কাজে এগিয়ে রয়েছেন, তার ছেলে রাসেল আহমেদ জানান, আমার বাবা তিনি নির্বাচিত হলে কোন প্রভাবের কারনে অন্যায়কারীরা পার পাবেনা। সমাজের অপরাধের হার পুরোপুরি কমে যাবে।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*