সংবাদ শিরোনামঃ

কাথরিয়া ইউনিয়নে সুদি সমশুর নির্যাতনের শিকার হয়েছে নিলু আক্তার

কাথরিয়া ইউনিয়নে সুদি সমশুর নির্যাতনের শিকার হয়েছে নিলু আক্তার, ভয়ভীতিতে ও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দিন কাটাচ্ছেন শওকতের পরিবার। চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার ৬ নং কাথারিয়া ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের পেশাদার সুদখোর সমশুর নির্যাতনের শিকার হয়েছে শওকতের পরিবার রেখা আক্তার।

এই সমসু একজন পেশাদার সুদখোর ও নারীলোভী, গত ২-৮ ২০২০ ইংরেজি তারিখে রেখা নামের ৩ সন্তানের জননীকে প্রতি নিয়ত কুপ্রস্তব দিয়ে আসছিল, সেই সুদি সমশুর নির্যাতনের বর্ণনা দেয় রেখার বড় ছেলে ১৪ বছরের সোহেল কে তার মায়ের উপর নির্যাতনের প্রতিবাদ করে সোহেল, বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে, আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে সেই সুদি সমশু, নির্যাতনের মাএা বাড়ায় ঘরে ডুকে মারধর করে রেখা সোহেল ও শওকতের পুরা পরিবারকে, সুদি সমশুর নির্যাতন থেকে বাদ পড়েনি ৯০ বছর বয়সি এক বৃদ্ধা মহিলাকেও,।

সিটিজি ক্রাইম টিভির অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে সেই সুদি সমশুর অপকর্মে , সুদি সমশু রিক্সা চালক থেকে কোটি টাকার মালিক এখন,, এলাকায় অসহায় গরীব মানুষের দুর্বলতার সুযোগকে কাজে লাগায় সুদি সমশু তাদেকে ছড়া সুদের উপর টাকা দেয়, সেই সুদি সমশুকে নিয়মিত সুদের টাকা দিতে না পারলে তাদের উপর নেমে আসে অমানুষিক নির্যাতন, ঘরে ডুকে মালামাল নিয়ে সর্বোচ্চ কেডে নেয় অসহায় মানুষেদের কাজ থেকে,সেই সুদি সমশু বিরুদ্ধে এর আগেও অনেকবার অভিযোগ এসেছে বাংলাদেশ লোকাল এবং জাতীয় দৈনিক পএিকায় সংবাদ প্রকাশ হয়।

এই দিকে গত ২-৮ ২০২০ ইংরেজি, কাথারিয়া ইউনিয়নের গোয়াজ চৌধুরী বাড়ীর শওকতের বউয়ের উপর নির্যাতন ঘরে ডুকে মালামাল লুট শওকতের স্কুল পড়ুয়া ছেলে সোহেলকে মারধর করলে তারা কোন উপায় না দেকে, শওকতের বউ রেখা আক্তার বাদী হয়ে বাঁশখালী জুড়িসিয়াল ম্যাজিসেট্টট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন যার মামলা নং ৪৩৮/২০২০-। ৩৪১/৪৪৮/৩২৩/৩০৭/৩৫৪/৩৮০/৫০৬ ধারায়, দঃ বিঃ মাননীয় আদালত বাদীনি বর্ণনা শুনে মামলাটি আমলে নিয়ে, বাঁশখালী থানাকে তদন্তের জন প্রেরন করেন।

এইদিকে সুদি সমশুর হাতে নির্যাতিত বাদীনি রেখা আক্তার সিটিজি ক্রাইম টিভিকে বলেন, এই সুদি সমশু প্রতিনিয়ত আমাকে কু প্রস্তাব দেয়, আমি তার কথায় সাড়া না দিলে ঘরে ডুকে আমাকে এবং আমার ছেলে ও আমার ৯০ বছর বয়সী শাশুড়ী মারধর করে, এবং আমাদের বাড়ীর সামনে আমরা যাতে ঘর থেকে বের হতে না পারি, পথের রাস্তাটি কাট দিয়ে অবরুদ্ধ করিয়া ফেলে,, এমতাবস্থায় কোন উপায় না দেকে আমার ছেলে সোহেল, আইনের সহযোগিতার জন, ৯৯৯ ফোন দিলে, বাঁশখালী থানার এ,এস, আই মামুন এই দিন দুপুর ১২টার সময় ঘটনাস্থলে আসে এবং আমাদেরকে সুদি সমশুর নির্যাতন থেকে উদ্ধার করে।

সেই সুদি সমশুর আরেক ছেলে ফোরকার, গতবছর বিয়ের প্রলোবন দেখিয়ে একটি মেয়েকে প্রতি নিয়ত ধর্ষণ করে আসছিল, আসহায় মেয়েটির পরিবার কোন উপায় না দেকে বাঁশখালী থানায় একটি সুদি সমশুর ছেলের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণের অভিযোগ করে, পরে মেয়েটিকে বিয়ে করে ঘরে তুলে নেয় ফোরকান, এই সুদি সমশুর নির্যাতনের শিকার হয়েছে অনেকে, এই সুদি সমশু ও তার ছেলেদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে, স্হানীয়রা বলেন আমরা এই সুদি সমশু ও তার ছেলেদের হাতে নির্যাতনে অতিষ্ঠ আমরা এলাকাবাসী এই সুদি সমশুর কটিন শাস্তি দেওয়ার জন্য প্রসাশনের কাজে জোর দাবী জানাচ্ছি।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*