সংবাদ শিরোনামঃ

চটগ্রামের ইয়াবা ব্যবসায়ীদের খুজছে গোয়েন্দা পুলিশ।।

মাদক সম্রাট, অবৈধ কারবারের গডফদার,কুচক্রী আবু তালেব ও সুদী সামসু সিটিজি ক্রাইম টিভি চেয়ারম্যানের মানহানি করায় আইসিটি ও মানহানি মামলা করা হয়েছে। এই মামলা হওয়ার পর থেকে আবু তালেব ও সামসুকে বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থা খুঁজছে। তাদের বিরুদ্ধে সাইবার ট্রাইব্যুনালসহ থানায় একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানা গেছে। মুখোশের আড়ালে তারা ইয়াবার ব্যবসার সাথেও জড়িত রয়েছেন। বর্তমানে ইয়াবা খোরশেদ ইয়াবাসহ কারাগারে আটক রয়েছে। তাদের সহযোগী ইফতেখারুল করিম ইয়াবা ও অস্ত্রসহ দুদিন আগে গ্রেফতার হয়েছে। গ্রেফতার খোরশেদ এর বিরদ্ধে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। মাদক সম্রাট ইয়াবাখোর মোবাইল চোর সাজাপ্রাপ্ত আসামী খোরশেদ ইয়াবাসহ আটক হবার পর তাদের সাথে আরো কারা কারা জড়িত আছে তাদের তালিকা হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়। অপরদিকে চট্টগ্রামের ইয়াবা ডন লেদু গুন্ডা এখনো পর্যন্ত আটক হয়নি। চট্টগ্রাম অক্সিজেনের অবৈধ কারবারের রাজা লেদু গুন্ডা, তার সহযোগী মোবাইল চোর মাজেদুল। তাদের অবৈধ ব্যবসাগুলো পরিচালনা করছে মোবাইল চোর মাজেদুল ও তার কথিত স্ত্রী বিবি মরিয়ম। চাাঁদাবাজ, প্রতারক, মোবাইল চোর, নারী ক্যালেঙ্কারীতে লিপ্ত মাজেদুলের বিরুদ্ধে এর আগেও অনেক ভুক্তভোগী নারীরা অভিযোগ করেছে। আর অনেক মিডিয়ায় এই মাজেদুলের বিরুদ্ধে ও দেশযোগ ফেসবুক পেজের বিরুদ্ধে বহুবার সংবাদও প্রচারিত হয়েছে। এখন সিটিজি ক্রাইম টিভি চেয়ারম্যান আজগর আলী মানিকের সুনাম নষ্ট করার জন্য চক্রান্ত করে, নানা কৌশলে বিভিন্ন ভিডিও কেটে এডিট করে মানহানীকর খবর প্রচার করে আসছে এই অসাধু মাজেদুল ও তার সহযোগীরা। জানা যায়, ভুক্তভোগীরা বায়েজিদে লেদু বাহিনীর অপতৎপরতা বন্ধে প্রশাসনের সাহায্য কামনা করেছেন। খুব শিঘ্রই চট্টগ্রাম নগরের বিভিন্ন এলাকায় পৃথক পৃথক অভিযান পরিচালনা করে ইয়াবাসহ অবৈধ কারবারীদের আটক করবে প্রশাসন। গোয়েন্দা সংস্থার নজরে রয়েছে অপরাধীরা। পুলিশের নজরে রয়েছে তারা এবং যেকোন সময় গ্রেফতার হতে পারে।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*