সংবাদ শিরোনামঃ

যশোরের চৌগাছায় মেইন সড়কের উপর গড়ে উঠেছে নছিমন করিমন স্ট্যান্ড- প্রশাসন আছে নিরব ভুমিকায়


এম, আমিরুল ইসলাম (জীবন) যশোর (জেলা) প্রতিনিধি:

কপোতাক্ষ নদের উপর ব্রিজ সংলগ্ন যশোরের চৌগাছা-মহেশপুর মেইন সড়কের উপর গড়ে উঠেছে অবৈধ নছিমন-করিমন স্ট্যান্ড এমন কি ব্রিজটির মূল অংশও দখল করা হয়েছে দেখেই মনে হয় দেখার যেন কেউ নেই।এছাড়া ব্রিজটির পূর্ব পাশের সড়কে কয়েকশত দোকানদাররা অবৈধ ভাবে গড়ে তুলেছে ছোট-বড় নানা রকম ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। মেইন রাস্তার উপরেই স্ট্যান্ড বানিয়ে যানবহন থামার কারনে ভিড় জমছে সড়কে ,ফলে সাধারণ যাত্রী ও পথচারীরা জীবনের ঝুকি নিয়ে সড়কটিতে চলা ফেরা করছে।এখনই সচেতন না হলে যে কোন সময়ে ঘটে যেতে পারে বড় কোন দূর্ঘটনা। খুব সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সড়কের উপর সিরিয়াল দিয়ে যাত্রী উঠানামা করেন, যানবহনের মালিকরা তার সাথে আবার যোগ দিয়েছে বেশ কিছু ট্রাক,বাস,ঢাকা গামী পরিবহনের চালকগণ।চৌগাছার ব্যস্ততম এই ব্রিজটির সামনের পাশে চৌগাছা মৃধাপাড়া মহিলা কলেজ ও তার ঠিক পিছনে চৌগাছা শাহাদৎ পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কয়েক হাজার শিক্ষার্থী প্রতিদিন এই সড়কটি ব্যবহার করে। উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন নারায়নপুর,স্বরুপদাহ,সুখপুকরিয়া কয়েক হাজার লোকের এক মাত্র চলাচলের পথ এটি।এছাড়া পাশের জেলা ঝিনাইদাহের জিবননগর,পুড়াপাড়া,মহেশপুর যাওয়া আসার একমাত্র পথ হিসাবেও ব্যবহার করা হয় এই সেতুটি।সেতুটি দিয়ে প্রতিদিন কয়েকশত ভারি সহ হালকা মাঝারি যানবহন চলাচলা করে।চৌগাছাবাসীর সুযোগ সুবিধার কথা মাথায় রেখে আশির দশকে কপোতাক্ষ নদের উপর তৈরি করা হয় বেইলি লোহার ব্রিজ কিন্তু কয়েক বছর যেতে না যেতে অযত্নে- অবহেলায় সেই বিজটি চলাচলে ঝুকি পূন্য হয়ে ওঠে ।ফলে চৌগাছাবাসীর দাবির মুখে বর্তমান সরকার ঠিক তার পাশেই কয়েক কোটি টাকা খরচ করে নতুন ভাবে তৈরি করেন আরেকটি নতুন ব্রিজ। তবে ব্রিজটি এখন খেটে খাওয়া মানুষের জন্য এক দূর্ভোগের কারণ হয়ে উঠেছে। নাম প্রকাশ না করা শর্তে একাধিক ব্যবসায়ী বলেন মেইন সড়ক থেকে ব্রিজটি বেশ উচু হবার কারণেই এই সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।এক ভ্যান চালক বলেন নতুন ব্রিজটি আমাদের কাছে গলার কাটা হয়ে উঠেছে তিন থেকে চার জন যাত্রী নিলে আর ব্রিজটি পার হতে পারিনা ফলে দুই জন যাত্রী নিয়েই বিজটি পার হতে হয়।অনেক সময় মাঝারি মাল নিলে বিজটি পার হতে হলে তিন চার জনের ঠেলা দিয়ে ব্রিজটিতে উঠতে হয়।ফলে আমরা এখন গাড়িতে আর মাল বহন করিনা কোন রকম দুই একজন যাত্রী বহন করি। সাধারণ জনগন ও বাজারের ব্যাবসায়ীদের দাবি বিষয়টার উপর যেন খুব দুরত্ব প্রশাসন নজর দেয়
সাংবাদিক আমিরুল ইসলাম জীবন
সাংবাদিক আমিরুল ইসলাম জীবন

Shikder Liton
Shikder Liton

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*