সংবাদ শিরোনামঃ

শরীয়তপুরে পাসপোর্ট করতে এসে রোহিঙ্গা নারী আটক


মোহাম্মদ নান্নু মৃধা শরীয়তপুর প্রতিনিধি

শরীয়তপুর পাসপোর্ট করতে এসে শাহিদা নামে এক রোহিঙ্গা নারী আটক হয়েছে। বুধবার দুপুরে পাসপোর্ট ফরম জমা দেয়ার সময় কাউন্টার থেকে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত নারীর ছদ্যনাম শাহিদা আক্তার। শাহিদা মিয়ানমারে সুখতারা নামে পরিচিত। তিনি জাজিরা উপজেলার পালেরচর (মহন ফকিরের কান্দি) গ্রামের বাবুল ফকিরের স্ত্রী পরিচয়ে পাসপোর্ট করতে আসেন। আটককৃত রোহিঙ্গা নারীকে পাসপোর্ট কর্তৃপক্ষ পালং মডেল থানায় সোপর্দ করেন। শরীয়তপুর আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালক শেখ মাহাবুর রহমান জানায়, ৬ নভেম্বর বুধবার দুপুরে বাবুল ফকির ও তার স্ত্রী পরিচয়ে শাহিদা আক্তার দুটি পাসপোর্টের পরিপূর্ণ ফরম নিয়ে কাউন্টারের সামনে লাইনে দাঁড়ায়। প্রথমে শাহিদার স্বামী পরিচয়ে বাবুল ফকির ফরম জমা করে। পরবর্তীতে শাহিদা ফরম জমা দেয়। ফরম জমা কাউন্টারে দায়িত্বে থাকা সহকারী হিসাব রক্ষক সালে আহমেদ শাহিদার জবানবন্দি গ্রহন কালে স্বামী ও গ্রামের নাম ছাড়া বাংলায় অন্যকিছু বলতে পারে নাই। পরে শাহিদাকে আটক করা হয়। এ সময় শাহিদার স্বামী বাবুল ফকির পালিয়ে যায়। শাহিদা কর্তৃক পূরণকৃত পাসপোর্ট ফরম থেকে জানা যায়, সে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার পালের চর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জন্ম সনদ ও পরিচয়পত্র নিয়েছেন। পালের চর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মতিউর রহমান নিবন্ধক হিসেবে শাহিদার জন্ম সনদ ও পরিচয়পত্রের নিচে নিবন্ধকের নাম সহ সীল মোহর সহ স্বাক্ষর করেছেন। পাসপোর্ট ফরম ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সত্যায়ন করেছেন পূর্বনাওডোবা আইডিয়াল কিন্ডার গার্টেন এন্ড হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক ফাহাদ হোসেন সৌম্য। আটকৃত রোহিঙ্গা নারী জানায়, বাবুল ফকিরের সাথে তার চট্টগ্রামে দেখা হয়। সে ওই নারীকে মালয়েশিয়া পাঠানোর কথা বলে শরীয়তপুর নিয়ে আসে। সকল কাগজপত্র বাবুল ফকির প্রস্তুত করে এবং তার স্ত্রী পরিচয়ে তাকে পাসপোর্ট করার জন্য পাসপোর্ট অফিসে নিয়ে আসে। পালং মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ আসলাম উদ্দিন বলেন, পাসপোর্ট করতে এসে পাসপোর্ট অফিসে এক রোহিঙ্গা নারী আটক হয়। আটকৃত রোহিঙ্গা নারীর বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক প্রচলিত আইনে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*