সংবাদ শিরোনামঃ

রিক্সা চালকও এখন সন্ত্রাস বিরোধী রাজু স্মারক ভাস্কর্যে

অাজ (০৯-১০-২০১৯) বিকেল ৩ টা ৪৫ মিনিটে সময় বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র অাবরার ফাহাদ হত্যার বিচারের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাস বিরোধী রাজু স্মারক ভাস্কর্যে চলমান বিক্ষোভ সমাবেশ ও কালো পতাকা মিলের পূর্বে একজন সাধারণ রিক্সা চালক সন্ত্রাস বিরোধী রাজু স্মারক ভাস্কর্যে উঠেন ও অাবরার ফাহাদ হত্যার বিচার দাবি করেন এবং বলেন, ছাত্রলীগ একটি সন্ত্রাসী সংগঠন। এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সহ বাংলাদেশের সব সর্বোচ্চ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন। তারা সবাই ঐ রিক্সা চালকে সমর্থন দেন। এছাড়াও এই হত্যার তীব্র প্রতিবাদ ও সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছে জাতিসংঘ সহ দেশ ও বিদেশে নানা সংগঠন। ফেসবুকে ভারত বিরোধী পোস্ট দেয়ায় ছাত্রলীগ নেতাদের হাতে খুন হওয়া বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে হত্যার ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছে জাতিসঙ্ঘের বাংলাদেশ অফিস। বিবৃতিতে বলা হয়, বাকস্বাধীনতা মানুষের অধিকার। নিজের মত প্রকাশের জন্য কাউকে হয়রানি, নির্যাতন এবং হত্যা করা উচিত নয়। বছরের পর বছর বাংলাদেশের ক্যাম্পাসগুলোতে সহিংস ঘটনা ঘটছে। এর ফলে অনেক জীবন ঝরে পড়েছে। কিন্তু এসব ঘটনার জন্য অপরাধীরা দৃশ্যত দায়মুক্তি পায়। অভিযুক্ত হত্যাকারীদের ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ কী ব্যবস্থা নিচ্ছে এ ব্যাপারটি জাতিসঙ্ঘ বাংলাদেশ অফিস নজর রাখছে। বিবৃতিতে জতিসঙ্ঘ বাংলাদেশ নিরপেক্ষ তদন্তের জন্য উৎসাহ দেয়, যা সুষ্ঠ প্রক্রিয়ায় ন্যায়বিচার সম্পন্ন করে, পরবর্তীতে এমন ঘটনা প্রতিরোধ করে। প্রসঙ্গত, ফেসবুকে ভারত বিরোধী পোস্ট দেয়ায় রবিবার মধ্যরাতে বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগ নেতারা। আবরার ফাহাদ বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের (ইইই) বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। শেরে-বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন তিনি।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*