সংবাদ শিরোনামঃ

ভোলায় গভীর রাতে গৃহবধূর উপর হামলা

মিরাজ হোসেন
স্টাফ রিপোর্টারঃ
ভোলা সদর উপজেলার ২নং ইলিশা ইউনিয়নের ০১নং ওয়ার্ডে আব্দুল মালেক সেরান বাড়ির মোঃ আব্দুল মালেকের পুত্র বধূ মোসাঃ জেসমিন বেগমের (২০) উপর হামলা চালায় একদল দুর্বৃত্তরা। আহত জেসমিন বেগম ভোলা সদর হাসপাতালের মহিলা মেডিসিন ওয়ার্ডের অতিরিক্ত ৯নং বেডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। রবিবার ভোররাতে শশুড়বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। আহত জেসমিন বেগমের স্বামীর নাম মোঃ ইব্রাহিম খলিল, পিতাঃ মোঃ ইয়াছিন বেপারী। জেসমিন বেগম জানান, ভোর রাত প্রায় সাড়ে চারটার দিকে তিনি গোসল করার জন্য একা পুকুরের ঘাটে যান। মুখোশ পড়া ৩-৪ জন লোক হঠাৎ করে তাকে পিছন থেকে ঝাপটিয়ে ধরে। তার মুখ তোয়ালে দিয়ে বেঁধে তার নাক ও কানের স্বর্নলংকার নিয়ে যায়। দুর্বৃত্তদের সাথে ঝাপটা ঝাপটির এক পর্যায়ে দুর্বৃত্তরা তাকে চুরিঘাত করে। চুরিঘাতের ফলে তার দুই হাত ও পেট রক্তাক্ত হয়। তিনি আরো জানান, দুর্বৃত্তরা চলে যাওয়ার সময় বলেছিলো ” তোর জামাইয়ের সাথে আমাদের কথা হয়েছে তোকে মারতে পারলে আমাদেরকে দশ হাজার টাকা দিবে “। পরে তার ডাক চিৎকারে ঘরে থাকা শশুড় শাশুড়ি তাকে উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। জেসমিন বেগমের স্বামী মোঃ ইব্রাহিম খলিল দুর্বৃত্তদের কথাটি অস্বীকার করে বলেন, রাত প্রায় তিনটার দিকে আমি গোসল করে নদীতে মাছ ধরতে যাই। তখন সে ঘুমিয়ে ছিলো। পরে আমার কাছে খবর যায় রাতে সে গোসল করতে গেলে কে বা কারা তাকে পিছন থেকে ধরে নাক কানের স্বর্নলংকার নিয়ে যায়। তার সাথে আমার কোন মনোমালিন্য হয়নি। এই বিষয়ে ইলিশা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ রতন কুমার শীল জানান, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*