সংবাদ শিরোনামঃ

ক্রেতাশূন্য ফটিকছড়ির গরুর বাজার

ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি (মুহাম্মদ শহীদুল ইসলাম) : রাত পোহালেই কোরবানির ঈদ। পছন্দের গরু-ছাগল ক্রয় প্রায় শেষ। আজ ফটিকছড়ির গরু বাজারগুলোতে বিক্রেতাদের হাঁক-ডাক আর ক্রেতাদের আনাগোনা কোনটাই নেই। বড় বড় বাজারগুলোও প্রায় গরুশূন্য। ফটিকছড়ির ছোট বড় প্রায় ৪৭টি হাট-বাজারে কোরবানির পশুর হাট রয়েছে। অনেক জায়গায় অস্থায়ী পশুর হাটও বসেছিল। স্থায়ী গরুর বাজার বিবিরহাট, নাজিরহাট, কাজিরহাট, আজাদী বাজার, নানুপুর, হেঁয়াকো, নারায়ণহাট, তকিরহাট ও আব্দুল্লাহপুর জামতল এবং অস্থায়ী গরুর বাজার ফকিরহাট বাজার, চারালিয়া হাট, শান্তিরহাট, ছিকনছড়া, বালুটিলা, পেলা গাজির দিঘি, দক্ষিণ ধর্মপুর মোশারফ আলী সওদাগরের ঘাটা, শ্যামলা হাট, রমজু মুন্সির হাট, টেকের দোকান, ধর্মপুরের আমতল, দৌলত মুন্সির হাট, চৌমুহনী বাজার, শান্তিরহাট ও কাঞ্চনপুর চমুর হাটসহ কোন বাজারেই তেমন গরু এবং ক্রেতা-বিক্রেতা চোখে পড়েনি। সব বাজারের সব খুঁটিই খালি পড়ে রয়েছে। অল্পস্বল্প কিছু গরু হাটে উঠলেও ক্রেতা নেই। অনেকেই ক্রেতা না পেয়ে হাট থেকে গরু বাড়িতে নিয়ে যেতেও দেখা গেছে। কয়েকজন গরু ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, শেষ সময়ে বাজারে গরু সংকট দেখা দিতে পারে এমন আশংকা থেকে কুরবানীদাতারা এবছর আগেভাগেই পশু ক্রয়ের কাজ সেরে ফেলেছেন।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*