সংবাদ শিরোনামঃ

পটিয়ায় নকশা পরিবর্তন করে বেড়ীবাঁধ নিমার্ন,গর্ভবতী মহিলার পেটে লাথি

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: সোহাগ আরেফিন
নকশা পরিবর্তন করে পটিয়া উপজেলায় শিকলবাহা খালের বেড়ীবাঁধ নিমার্নে অনিয়মের অভিযোগে জিরি ইউনিয়নের কৈয়গ্রাম ইসলামপুর গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। প্রকল্পটি এস এ এস আই ও ইশরাত এন্টার প্রাইজ(জেবি) প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে ঠিকাদারি কাজ করছে। এটি বাস্তবায়ন করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। সরজমিনে গিয়ে এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়- প্রকল্পটি বাস্তবায়নে তাদের নকশামতে ২৮৯৯ কৈয়গ্রাম এলাকায় তাদের ফ্লাগ ও গেড়ে দিয়েছে।সেই মতে কাজ যাওয়ার কথা। কিন্তু তা না করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মানুষের বসতি ও চলাচলের রাস্তা দখল করে বেড়ীবাঁধ নির্মানের কাজ শুরু করে। গত বৃহষ্পতিবার ১৬ তারিখ কাজ চলাকালে মাটি চাপে হাজী ওসমানের বাড়ীর টিনের সীমানা প্রাচির ভেংগে বাড়ীর দেওয়ালে মাটি চাপ দেয়।হাজী ওসমান এতে বাধাদিলে কন্ট্রাক্টারের লোকজন দেশিয় অস্ত্রনিয়ে তার উপর ঝাপিয়ে পড়ে, এতে তার বাম হাত কেটে যায়।ওসমান কে বাচাতে তার ছেলে মেয়েরা এগিয়ে গেলে সন্ত্রাসীরা তার ৪ মাসের গর্ভবতী মেয়ে শারমিনের পেটে লাথি মারলে রক্তক্ষরণ শুরু হলে কন্ট্রাক্টর ও তার লোকজন দ্রত সরে পড়ে ঘটনাস্থল থেকে। পরে এলাকাসীর সহায়তায় শারমিন ও তার বাবা হাজী ওসমান কে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হামলার ব্যপারে পটিয়া থানায় অভিযোগ ধায়ের করা হয়েছে যা মামলার ব্যপারে প্রক্রিয়াধীন। এই ব্যপারে উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম সওদাগর এর সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে “-আমি তদন্ত করে দেখব ” বলে লাইন কেটে দেয়। বর্তমানে ঘটনা স্থলে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

 

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*