সংবাদ শিরোনামঃ

ফটিকছড়িতে যুবক খুনের জেরে অভিযুক্তের বাড়িতে অগ্নিসংযোগ

 ফটিকছড়ি  প্রতিনিধি: এম. শাহনেওয়াজ নাজিম
ফটিকছড়িতে জায়গাজমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিবেশীর ছুরিকাঘাতে আবুল মুনছুর (৩৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। গতকাল (মঙ্গলবার) সন্ধ্যা ৬টায় ফটিকছড়ির উপজেলার বখ্তপুর ইউনিয়নের এঘটনা ঘটে। আবুল মুনছুর বখ্তপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে মিয়া বাড়ির মৃত্যু মোহাম্মদ মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় মুনছুরের ভাই আকবর ও চাচা জহুর ছাফা আহত হয়েছেন। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত আবুল মুনছুর ও প্রতিবেশী আলি নেওয়াজ বাবুর পরিবারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে চলাচলের রাস্তা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জেরে গতকাল (মঙ্গলবার) আনুমানিক সন্ধ্যা ৬টায় স্থানীয় শান্তিরহাট বাজারে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আলি নেওয়াজ বাবু ও তার সহযোগী ফিরোজ মুনছুরকে ছুরিকাঘাত করলে সে মাটিতে পড়ে যায়। এসময় মুনছুরকে বাঁচাতে গিয়ে মুনছুরের ভাই আকবর ও চাচা জহুর ছাফাও ঘাতকদের ছুরিকাঘাতে আহত হন। স্থানীয়রা ঘটনাস্থল থেকে তাদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মুনছুরকে মৃত ঘোষণা করেন। এঘটনায় আলি নেওয়াজ বাবুর পিতা আবদুল আজিজ ও তার মা মনোয়ারা বেগমকে আটক করেছে ফটিকছড়ি থানা পুলিশ। এদিকে আজ (বুধবার) দুপুর সাড়ে ১২টায় বিক্ষুব্ধ জনতা ও মুনছুরের আত্মীয়-স্বজন অভিযুক্ত বাবুর বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করেছে। পরে বিকাল ৩টায় ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা এসে আগুন নিভিয়ে দেন। ততক্ষণে বাবুর মাটি ও টিনশেডের ঘর সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। বখ্তপুর ইউপি’র প্যানেল চেয়ারম্যান নিজামুল মালিক জানান, ময়নাতদন্ত শেষে মুনছুরের মরদেহ বাড়িতে আনা হচ্ছে। আজ রাত সাড়ে ১০টায় মুনছুরের জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে। ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাবুল আকতার বলেন, জমি নিয়ে বক্তপুরের চাচাত জেঠাত ভাইদের মধ্যে বিরোধ ছিল। আজকে এ বিষয় নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে বাবু গং মনসুর এবং তার ভাই আকবরকে ছুরিকাঘাত করে। এতে মনসুর ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঘটনার সাথে জড়িত বাবুর পিতা আবদুল আজিজ ও মাতা মনোয়ারা বেগমকে আটক করা হয়েছে। আজ অভিযুক্ত বাবুর বাড়িতে অগ্নিসংযোগের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
 

 

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*