সংবাদ শিরোনামঃ

উৎসব মুখর পরিবেশে পহেলা বৈশাখ উদযাপন করে চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবসায় অনুষদ বিভাগ

আবদুল আউয়াল মুন্না: বৈশাখের প্রথম দিন। বাঙালির প্রাণের উৎসব পহেলা বৈশাখ। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষে দেশব্যাপী নানা উৎসবের আয়োজন করা হয়। ভোর থেকেই সব বয়সের মানুষের পদচারণায় উৎসবের স্থানগুলো ছিল রঙিন। সারাদেশের মতো চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবসায় অনুষদ বিভাগে ও বর্ণিল নানা আয়োজনে উদযাপিত হয়েছে পহেলা বৈশাখ উৎসব। হিপ হপ ডান্স বাংলা ১৪২৬ সালের প্রথম দিনটিকে বরণ করার জন্য গান-বাদ্য যন্ত্র আর উৎসবে মেতে ওঠেছে পুরো প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ।বৈশাখের বর্ণিল সাজে সেজেছে পুরো বিশ্ববিদ্যালয় । এ আয়োজন বাঙালির ঐতিহ্যের ধারক ও বাহক। বাঙালির প্রাণের এই উৎসব মূলত বাঙালির ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ও জাতিসত্তার প্রতীকী উপস্থাপন করে। এই দিনটিতে বাংলাদেশের মানুষ বাঙালিত্বের মন্ত্রে দীক্ষিত হয়। চমৎকার সব শিল্পকর্ম,আলপনা অপরুপ সৌন্দর্য্যে সাজিয়ে ওঠেছে পুরো ক্যাম্পাস। পহেলা বৈশাখকে কেন্দ্র করে লাল-সাদা-হলুদ সহ নানা রঙের শাড়ি-পাঞ্জাবি পরে সকাল থেকেই বাংলা নববর্ষ উদযাপনে মেতে উঠেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন বিভাগের উদ্যোগে বিভিন্ন ধরনের খাবারের স্টল এর আয়োজন করা হয় । এতে বাঙ্গালীর ঐতিহ্যবাহী সব খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছিল।খাবারের মধ্যে ছিল পান্তাভাত, ইলিশ ,পাটিসাপটা, বাঙালীর ঐতিহ্যবাহী খিচুড়ি, সাদা ভাত, দেশীয় পোলাও, বিভিন্ন মুখরোচক সব খাবার দাবার ।এসব আয়োজন করতে পেরে ছাত্রছাত্রীরা খুবই আনন্দিত ছিল । তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের নিয়ে একটা শর্ট ফিল্ম মিসেস জিনাত শাহানা ,লেকচারার ,এইচ আর এম বিভাগ এর তত্ত্বাবধানেসকাল দশটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের থিম সং দিয়ে বৈশাখের অনুষ্ঠান শুরু করা হয় । বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের উদ্যোগে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দেশীয় সব কালচারকে তুলে ধরা হয় ।সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের নিয়ে একটা শর্ট ফিল্ম দেখানো হয় । উৎসুক ছাত্র ছাত্রীরা উপভোগ করেছে তাদের অনুষ্ঠান, হাততালি দিয়ে অভিবাদন জানিয়েছেন তাদেরকে ।আয়োজকদেরও ইচ্ছে এমন এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে তারাও যে আমাদের সমাজের একজন সেই মেসেজটা সবাইকে দেওয়া এবং তারাও যেন অন্য একজন সাধারণ মানুষের মতো আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠুক। শেষ মুহূর্তে উন্মুক্ত মঞ্চে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী সকল ছাত্র-ছাত্রী এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ডিপার্টমেন্টের শিক্ষক ও শিক্ষিকা উপস্থিত ছিলেন তাদের পরিবার পরিজন নিয়ে ।পহেলা বৈশাখকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। কোনো ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই উৎসব মুখর পরিবেশে নববর্ষকে বরণ করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*