সংবাদ শিরোনামঃ

খুলনায় চলছে মাসব্যাপি অমর একুশে বই মেলা

রফিকুল ইসলাম, বিশেষ প্রতিনিধি: ফেব্রুয়রি ভাষার মাস, শহীদের তাজা রক্তের বিনিময়ে পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙ্গে এ মাসে স্বাধীন হয়েছে বাংলা মাতৃভাষা। বাংলা ভাষা পেয়েছে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি। এ মাসে দেশের সর্বত্র চলছে বাঙালির প্রাণের মেলা কবি, সাহিত্যিক, লেখক ও পাঠকদের মিলন মেলা অমর একুশে বই মেলা। খুলনা শহরের প্রাণকেন্দ্রে বিভাগীয় সরকারি গনগ্রন্থাগার প্রাঙ্গনে ১লা ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে মাসব্যাপি বই মেলা। চলবে ২৮শে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। মেলায় স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ের শতাধীক স্টল রয়েছে। প্রত্যাহ সকাল ৯.৩০ মিনিট থেকে শুরু হয়ে রাত্র ৯.৩০ মিনিট পর্যন্ত চলছে এ মেলা। স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ের কবি সাহিত্যিকদের স্বর্নলী পদধুলীতে মুখরিত হয়ে চলেছে প্রত্যাহ মেলা প্রাঙ্গন। স্বরচিত কবিতা আবৃতি, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলছে নিয়মিত। স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের উদ্যোগে সংগীতানুষ্ঠান ও নৃত্যের ঝংকারে আনোন্দিত হচ্ছে উপস্থিত দর্শনার্থী শ্রোতা। লেখক পাঠকের হরবর সমাগম চোখে পরছে প্রথম থেকেই। প্রতি বছরের ন্যায় এ বছরও মেলায় পাঠকের হৃদয় কেড়ে নেওয়ার মত খুলনার অগনিত লেখকের বই প্রকাশিত হয়েছে। মেলার প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত লেখক কুঞ্জে প্রতিদিনই চলছে লেখকদের আড্ডা ও নতুন বইয়ের মোড়ক উম্মোচন। খুলনার নবীন ও প্রবীন লেখকদের প্রকাশিত নতুন বইয়ের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো…. অধ্যক্ষ খান আকতার হোসেন এর ফরিং মেয়ে, আবেগী ঝর, টান। রফিকুল ইসলাম আজহারী এর হবো আমি একা, মন ছুঁয়েছে নীরবে। সোহেল নওরোজ এর গল্পটি শুনতে চেওনা। এস এম আব্দুর রহমান এর শেষ বসন্ত। ইশরাক শুভ এর টেলিপ্যাথি, সাইকো। প্রবির রায় এর রাতের অতিথি। ডা. আব্দুল্লাহীল মাহমুদ এর সম্পদ উপার্যনে হালাল হারাম। আহমদ আলী মুন্সি এর নষ্ট রক্তের কষ্টের স্রোত। শাহিন রহমান এর আবার আসবো ফিরে। লায়লা ফাতেমা সুমি এর আসমানের কথা। হাফিজুর রহমান এর যে গল্প হয়না লেখা। মো: অয়েজুল হক এর গল্পের সাথে হেসেছিলো গল্পগুলো। স্টোলা সীমা গোমাজ এর শব্দ সুতোয় গুনোট। শুব্রত চৌধুরী’র দেবী অথবা মানবী। মীনাক্ষী দাস এর অবিচ্ছেদ্য। চির সবুজ এর বিরহকাল। সুপ্রসাদ গোস্বামী এর রক্ত প্রবালের খুনসুটি। উজ্জল অনুজ্জল এর গেরুয়া সানগ্লাস। কাজল বিনতে শাহিদা এর তখনও তুমি ছিলে। মাও: গাজী আব্দুর রহমান এর ফরজ পালন ও হারাম বর্জন। শেখ মো: ইকবাল হোসেন এর মায়াবী বাঁশি, উদাসী হাসি। দীপন মন্ডল এর রুপালী চাঁদের আয়না। রূপা বাড়ৈ এর সান্ধ্য প্রদীপ, ভোরের শিশির। নাজনীন তৌহিদ এর রান্না বান্না ইত্যাদী। মেলা পর্যবেক্ষন চলা কালে প্রকাশক ও সময়ের আলোচিত কথাসাহিত্যিক এস এম আব্দুর রহমান সিটিজি প্রতিনিধিকে জানান আমাদের খুলনা মেলার পরিবেশ এ বছর খুবই ভালো। অন্যান্য বছরের তুলনায় খুলনার লেখকদের বই সবথেকে বেশী বিক্রি হচ্ছে। খুলনার লেখকদের নতুন বই সংগ্রহে পাঠকদের আগ্রহ বেশীই দেখা যাচ্ছে। সর্বপরী মেলা আয়জোকদের তিনি ধন্যবাদ জানান। মেলার মূলমঞ্চে আগামিকাল শুক্রবার সকাল থেকে দিনব্যাপি চলবে গাঙচিল আন্তর্জাতিক ১০০তম কবি সম্মেলন। যাতে অংশগ্রহন করবে কোলকাতা থেকে ৩০জন কবি সহ সুইডেন, এ্যমেরিকা ও জার্মান থেকে আগত কবি বৃন্দ।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*