সংবাদ শিরোনামঃ

পটিয়ায় দুর্নীতি বিরোধী গণশুনানী তে গ্রাহকদের হয়রানির অভিযোগ

পটিয়া (চট্টগ্রাম) থেকে সেলিম চৌধুরী : বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের আওতাধীন ৮০টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মাধ্যমে ইতিমধ্যে ২ কোটি ৩৬ লক্ষ গ্রাহককে বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আনা হয়েছে। সরকার গ্রাহকদের কল্যাণে মাঠ পর্যায়ে গ্রাহক হয়রান ও দুর্নীতি বন্ধে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণের পরও নানান অভিযোগ আসায় দেশব্যাপী গণশুনানীর আয়োজন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় পটিয়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বাপবি বোর্ডের নির্দেশে চট্টগ্রাম পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর উদ্যোগে দুর্নীতির গ্রে এরিয়া এর কারণ সমূহ চিহ্নিতকরণ ও প্রতিকার ইত্যাদি নির্ধারণের লক্ষ্যে বাপবি বোর্ড কর্তৃক গঠিত টাস্ক ফোর্সের এক গণশুনানী পটিয়া উপজেলার নির্বাহী অফিসার মো. রাসেলুল কাদেরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। গণশুনানীতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে গ্রাহকের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের সদস্য সরকারের অতিরিক্ত সচিব বাপবিবোর্ডের গঠিত টাস্ক ফোর্সের আহবায়ক মো. ইয়াকুব আলী পাটওয়ারী, বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের নির্বাহী পরিচালক অরুণ কুমার চৌধুরী, প্রধান প্রকৌশলী মো. জালাল উদ্দিন মিয়া, ময়মনসিংহ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী মো. জহিরুল ইসলাম, বাপবি বোর্ডের পরিচালক ঢালী ইউসুফ আহমেদ, মো. আনোয়ার হোসেন, মো. হোসেন পাটোয়ারী, চট্টগ্রাম পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর জেনারেল ম্যানেজার মো. আবু বক্কর সিদ্দিকী, পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোজাফ্ফর আহমদ চৌধুরী টিপু, পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, সহকারী কমিশনার ভূমি মিল্টন রায়, পটিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এডিশনাল এসপি) জসিম উদ্দিন খান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পীরজাদা এয়ার মুহাম্মদ পেয়ারু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা বেগম জলি, পটিয়া থানার ওসি (তদন্ত) রেজাউল করিম মজুমদার সহ দুর্নীতি হয়রানির শিকার এবং অভিযোগ রয়েছে এমন গ্রাহক, বিদ্যুৎ সংযোগ প্রত্যাশীগণ, এলাকার জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ও পেশাজীবীগণ উপস্থিত ছিলেন। উক্ত সভায় বোয়ালখালীর সাংবাদিক অধীর বড়–য়া বলেন, গ্রামের মফস্বল এলাকায় বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন স্থাপন করতে গিয়ে গ্রাহকরা হয়রানির শিকার হয়। পটিয়ার সুচক্রদন্ডী এলাকার মো. জাহেদ দাবি করেন তাদের বিদ্যুতের বিল দিতে গিয়ে অনেক জামেলার মধ্যে পড়তে হয় বলে অভিযোগ তুলেন। পটিয়ার গ্রাহক হারুনুর রশিদ সিদ্দিকী পল্লী বিদ্যুতের বিভিন্ন জায়গায় রাস্তার উপর খুঁটি অপসারণের দাবি জানান। গ্রাহক আবেদুজ্জামান আমিরী সিস্টেম লস এর নামে পল্লী বিদ্যুৎ, ঠিকাদার কর্মচারী সংশ্লিষ্টরা এবং ইলেকট্রেশিয়ানরা গ্রাহকদের চরমভাবে হয়রানি করছে বলে অভিযোগ তুলেন। এব্যাপারে দক্ষিণ চট্টগ্রামের পল্লী বিদ্যুৎ গ্রাহকরা যাতে হয়রানিমুক্ত হয় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*