রাঙ্গুনিয়ায় আগুনে পুড়েছে রাইসমিল ও লাকড়ি মিল: ৪ কোটি টাকার ক্ষতি

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধিঃ  রাঙ্গুনিয়ার শান্তিরহাট বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুনে দুটি রাইসমিল, একটি লাকড়ি মিল, একটি ভাংগারির দোকান মালামাল সহ সম্পূর্ণ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এছাড়াও আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয় পাশের আরো একটি রাইস মিল। রবিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় প্রায় ৪ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্তরা দাবী করেছেন। অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে রাঙ্গুনিয়া, চট্টগ্রাম কালুরঘাট ও কাপ্তাই ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিট প্রায় তিন ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণ আনেন। জানা যায়, উপজেলার শান্তিরহাট বাজারের পশ্চিম পাশের একটি রাইস মিলে হঠাৎ আগুন ধরে যায়। মুহুর্তে আগুন মিলের চারপাশে ছড়িয়ে পড়ে পাশের মিলগুলোতেও ছড়িয়ে যায়। অগ্নিকান্ডে শান্তিরহাটের নাজিম উদ্দিনের মালিকানাধিন বার আউলিয়া অটো রাইসমিল, আবু জাফরের মালিকানাধীন সৈয়দ আবদুস সোবহান অটো রাইস মিল ও লাকড়ির মিল, পলাশ দে’র মালিকানাধীন মা এন্টারপ্রাইজ নামে একটি ভাংগারির দোকান মেশিনারী সহ সম্পূর্ণরূপে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এছাড়াও মো. আলী সওদাগরের মালিকানাধীন আল হুদা অটো রাইস মিলেও আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। দোকানের ভিতর ঘুমিয়ে থাকা শ্রমিকরা আগুনের বিষয় টের পেয়ে দৌড়ে বাইরে এসে আগুনের বিষয়ে মালিকদের জানায়। তারা রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিসে খবর দিলে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। বার আউলিয়া অটো রাইসমিল মালিক নাজিম উদ্দিন বলেন, ‘আমার রাইস মিলের সাথে প্রায় ৪হাজার বস্তা ধান, ৮শত বস্তা চাউল সহ প্রায় আড়াই কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।’ সৈয়দ আবদুস সোবহান অটো রাইস মিলের মালিক আবু জাফর বলেন, ‘আমার রাইস মিল ও লাকড়ির মিল দুটোই সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে। রাইস মিল, ধান-চাল সহ সবমিলিয়ে প্রায় দেড় কোটি এবং লাকড়ির মিল সহ মালামাল মিলে প্রায় বিশ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।’ মা এন্টারপ্রাইজের ভাংগারির দোকানের মালিক পলাশ দে বলেন, তার প্রায় তিন লাখ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে। রাঙ্গুনিয়া ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, ‘আগ্নিকান্ডের খবরে দ্রæত ঘটনাস্থলে দুটি ইউনিট নিয়ে যায়। কিন্তু আগুনের অবস্থা দেখে চট্টগ্রাম কালুরঘাট ও কাপ্তাই ফায়ার সার্ভিসে খবর দেওয়া হলে আমাদের দুটি সহ মোট ৪টা ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করি। প্রায় তিন ঘন্টার চেষ্ঠায় আগুন নিয়ন্ত্রণ আসে। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।’

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*