সংবাদ শিরোনামঃ

হাটহাজারীতে নুরুদ্দীন হত্যা মামলার আসামী পাঙ্কা মিজান গ্রেফতার ।

চট্টগ্রাম হাটহাজারীতে বহুল আলোচিত নুরুদ্দীন হত্যা মামলার এজহার ভুক্ত আসামী পাঙ্কা মিজানকে গ্রেফতার করেছে হাটহাজারী
মডেল থানা পুলিশ।গত ১৪ আগষ্ট বুধবার দুপুর ২ টার সময় উপজেলা মেখল এলাকা থেকে
 মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই নাজমুল সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে পাঙ্কা মিজান কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হোন।গ্রেফতারের পর আসামি
কে আদালতে প্রেরণ করেন পুলিশ।মামলা সূত্রে জানা যায় গত ২৬ শে মে
ফতেয়াবাদ এলাকার আনার আলী টেন্ডলের বাড়ির মোঃআলী আহম্মদের পুত্র নিহত মোঃনুরুদ্দীন, শশুর বাড়ী থেকে নিজ বাড়ী আসার
পথে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী নুর হোসেন ওরফে চাপাতি হাসানের নেতৃত্বে ৮-১০ জন সন্ত্রাসী তাকে বহনকারী সি
এন জি অটো রিকশা থেকে ধরে চাপাতি হাসানের টর্চার সেলে নিয়ে যায়,সেখানে সন্ত্রাসীরা নুরুদ্দীন কে লোহার রড, পাইপ ও দেশিয়
অস্ত্র দিয়ে বেদরক পিটিয়ে বাম পায়ের হাড় দু’হাতের কুনুই সহ শরীরের বিভিন্ন অংশে মারাত্বকভাবে যখম করে এছাড়া টর্চার সেল
থেকে নিয়ে এসে বিদ্যুৎ কুটির সাথে রশি দিয়ে বেঁধে প্রকাশ্যে নির্যাতন চালায়।পাষন্ডরা নিহত নুরুদ্দীন কে মাটিতে শুইয়ে বুকের উপর
দিয়ে মোটর বাইক চালিয়ে নির্মমভাবে বুকের হাড় ভেঙে দেয়।স্বজনরা তাকে বাঁচাতে গেলে তাদেরকেও বেদরক পিটিয়ে আহত
করে,খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনা স্থলে হাটহাজারী মডেল থানার পুলিশের একটি দল পৌছালে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।পুলিশ মুমুর্ষ  নুরুদ্দীন
কে উদ্ধার করে প্রথমে হাটহাজারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর পরে চমেকে ভর্তি করেন সেখানে আই সি ইউ তে ৩ দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায়
নুরুদ্দীনের মৃত্যু হয়।নিহতের ভাই মহিউদ্দিন বাদী হয়ে শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী নুর হোসেন ওরফে চাপাতি হাসান ও গ্রেফতারকৃত মিজান
সহ ৮ জন কে আসামী করে হাটহাজারী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।জায়গাজমি সংক্রান্ত বিরোধ, মাদক ব্যবসায় রাজি না হওয়া
ও মাদক ব্যবসার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় নুরুদ্দীন কে মর্মান্তিকভাবে হত্যা করা হয় বলে জানান নিহতের ভাই ও মামলার বাদী
মোঃমহিউদ্দীন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই নাজমুল বলেন আসামী কে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে এবং এ মামলার এজহার ভুক্ত দুই আসামী সহ অজ্ঞাত এক আসামী কে গ্রেফতার করা হয়েছে  বাকী আসামীদের গ্রেফতারে  অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*