সংবাদ শিরোনামঃ

ফেন্সিডিল ও ইয়াবাসহ দুই পুলিশ কর্মকর্তা আটক!!

এই ঘটনাটি ঘটে খুলনায় পৃথক দুটি স্থানে অভিযান চালিয়ে ইয়াবা, ফেন্সিডিলসহ দুই পুলিশ সদস্যসহ ৫জন এবং এক নারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়। শনিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এ অভিযান চলে। খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের নগর বিশেষ শাখার অতিরিক্ত উপ-কমিশনার মনিরা সুলতানা জানান, খুলনা মহানগরীর খালিশপুর থানার আইজ্যার মোড় নামক এলাকায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে খুলনার আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ১হাজার পিচ ইয়াবাসহ গ্রেফতার করে। এসময় আব্দুল্লাহ আল মামুনের কাছ থেকে ইয়াবা নিয়ে বিক্রয়কারী সোনালী জুট মিলের শ্রমিক মেহবুব বিন আফতাবকে গ্রেফতার করা হয়। এএসআই মামুনের স্বীকারোক্তির মাধ্যমে খানজাহান আলী থানার যোগীপোল এলাকায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে বাগেরহাটের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) কনষ্টেবল সোহানুর রহমানকে ২০০পিচ ইয়াবা ও ৬ বোতল ফেন্সিডিল এবং তার সহায়তকারী মাদক বিক্রেতা নাহিদ শেখ ও সোহেল বেগকে গ্রেফতার করা হয়। এএসআই মামুন ও কনষ্টেবল সোহান দীর্ঘ দিন ধরে তাদের সহযোগীদের দিয়ে মাদক বিক্রি করে আসছিলো পুলিশ জানায়। এব্যাপারে খালিশপুর থানার ওসি সরদার মোশাররফ হোসেন জানান, ইয়বাসহ গ্রেফতার ৫জনের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। অপরদিকে খুলনার মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মো. সাইফুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার তেরখাদা উপজেলা চেয়ারম্যান শরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চুর নলিয়ারচরের বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এসময় তার ছোট ভাই রকিবউদ্দিন ও সহযোগী বুলবুল পালিয়ে গেলেও তার স্ত্রী শাহীনা পারভীনকে ১৫ পিস ইয়াবা ও ২০ গ্রাম গাঁজাসহ গ্রেফতার করা হয়। পরে বুলবুল মোল্লার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে একটি বিদেশি পিস্তল, ৩ রাউন্ড গুলি, ১টি ম্যাগজিন, চাপাতি ও বিভিন্ন সাইজের ৪টি রাম দা ও ২০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। তেরখাদা থানার ওসি মো. খালেকুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় তেরখাদা থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*