সংবাদ শিরোনামঃ

গনতান্ত্রিক উপায়ে গুইমারা ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার অভিভাবক পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত

মো: ফয়সাল খাগড়াছড়ি জেলা প্রতিনিধি ।

খাগড়াছড়ির গুইমারা ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির অভিভাবক সদস্য পদের নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। বুধবার (২২ জুলাই) সকালে মাদ্রাসার হলরুমে সম্পূর্ন গনতান্ত্রিক উপায়ে নির্বাচনটি শুরু হয়ে বিরতিহীনভাবে বেলা ২ টা পর্যন্ত ভোট গ্রহন চলে। মাদ্রাসা সুপার জয়নাল আবদীনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এই অভিভাবক প্রতিনিধি নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন, গুইমারা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সুদৃষ্টি চাকমা। এসময়ে মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, মাদ্রাসার শিক্ষক মোঃ ইউচুপ সহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত ভোটারদের নিকট জানতে চাইলে তারা বলেন, এই গুইমারা মাদ্রাসাটি প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর অভিভাবক পরিচালনা কমিটির সদস্য পদের এটাই প্রথম নির্বাচন। নির্বাচন অনুষ্ঠানের স্বতস্ফুর্ত উপস্থিতি দেখে তারা আনন্দিত। চারজন অভিভাবক প্রার্থী এই নির্বাচনে প্রতিদন্ধীতা করলেও নির্বাচিত হয়েছেন তিনজন। সামাজিক এবং ধর্মীয় সেবার লক্ষ্যে প্রার্থীরা একে অপরের বিরোধ না করে ভোটারদের কাছে গিয়েছেন একসাথে এ যেন নতুন ইতিহাস গড়া হয়েছে গুইমারায়। তবে ইবতেদায়ী শাখায় বিনা প্রতিধন্দীতায় সাবেক ইউপি মেম্বার আহম্মদ কবির নির্বাচিত হয়েছেন বলে মাদ্রাসা সূত্রে জানা যায়। ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেনীর ছাত্র-ছাত্রীদের ২১৯জন অভিভাবক এই নির্বাচনে ভোটার হিসেবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। তম্মধ্যে মহিলা ভোটার ছিলেন ৯জন। মোট ভোট প্রদান হয় ১১১ ভোট বাতিল হয়েছে একটি । একজন ভোটার ভোট প্রদান করেছেন তিনজনকে এরমধ্যে আনিছুল হকপান ৮৮ ভোট, ইকবাল হোসেনপান ৮৪ ভোট আবু তাহের পান ৭১ ভোট ও হাফিজুর রহমান পান ৬২ ভোট । এর মধ্যে সর্বাদিক ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন আনিছুল হক,ইকবাল হোসেনএবং আবু তাহের। নব নির্বাচিত অভিভাবক সদস্য আনিছুল হক বলেন, আমরা নির্বাচিত হয়েছি। সেটি বড় কথা নয়। অভিভাবক ভোটারগণ এ মাদ্রাসার শিক্ষার মান ও সার্বিক উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার যে দায়িত্ব আমাদেরকে অর্পন করেছেন তা পালনে নিবেদিত ভাবে কাজ করার অঙ্গীকার করছি। এ বিষয়ে মাদ্রাসাটির সুপার জয়নাল আবদীন বলেন ১৯৮৬ সালে গুইমারা দাখিল মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা হওয়ার পর এবারই প্রথম গনতান্ত্রিক উপায়ে অভিভাবক পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আশাকরি নির্বাচিত প্রতিনিধিরা মাদ্রাসার উন্নয়নে নিবেদিত ভাবে কাজ করে মাদ্রাসা উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখবে। তিনি আরো বলেন পূর্বের ন্যায় বর্তমানে গুইমারা ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসায় শিক্ষার মান অনেক উন্নয়ন হয়েছে। যার ফল হিসেবে এবারের দাখিল পরীক্ষায় শতভাগ পাশের ধারাও অব্যাহত রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি।

About Jisan Ali

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*