সংবাদ শিরোনামঃ

শ্রীপুরে রছাত্রীকে আটকে রেখে মারধর

সাইফুল আলম সুমন,শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ
গাজীপুরের শ্রীপুরে তেলিহাটি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে অফিস কক্ষে চার ঘন্টা আটকে রেখে মারধরের অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর অভিযোগ দায়ের করেছেন। এঘটনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের পক্ষ থেকে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

অভিযুক্ত শিক্ষক আবুল মুনসুর মানিক তেলিহাটি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। ঘটনার সময় প্রধান শিক্ষককে সহায়তা করেছেন সহকারী শিক্ষক জামান।

নির্যাতনের শিকার শিক্ষার্থী ও তাঁর অভিভাবক জানান, গত ৭ই ফেব্রুয়ারি (বুধবার) বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে বিদ্যালয়ের বাইরে কয়েকজন ছাত্র মারামারিতে লিপ্ত হয়। এঘটনার জের ধরে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জামান শম শ্রেণীর এ শিক্ষার্থীকে অফিস কক্ষে নিয়ে আটকিয়ে প্রধান শিক্ষককে খবর য়ে। কিছুক্ষণ পর প্রধান শিক্ষক অফিসে এসে রজা বন্ধ করে বিদ্যালয়ের বাইরে মারামারির ঘটনায় ছাত্রীকে অভিযুক্ত করে মারধর করে। এসময় তাকে প্রায় চার ঘন্টা বিদ্যালয়ের অফিস কক্ষে আটকিয়ে রাখে। পরে অভিভাবকরা সংবা পেয়ে ছাত্রীকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করেন।

এব্যাপারে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক আবুল মুনসুর মানিকের মুঠোফোনে একাধিক যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তবে বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের সভাপতি তেলিহাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল বাতেন সরকার জানান, এ ঘটনায় তিনি অবগত নন। খোঁজ নিয়ে প্রকৃত ঘটনা বের করে ায়ীরে বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এবিষয়ে শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেহেনা আকতার জানান, শিক্ষার্থীর কাছ থেকে অভিযোগ পেয়েছি, এবিষয়ে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

About Asgor Ali Manik

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*